কিভাবে সঠিক ও নির্দিষ্ট ভাবে আপনার আচরণের সমস্যাগুলো বুঝতে পারবেন?

আসুন একটি টিপস শেয়ার করি।

আপনি কি জানেন আমার মনের সমস্যাগুলো আমি যদি সঠিক ও নির্দিষ্ট ভাবে বুঝতে পারি তাহলে তাতেও আমার মনে শান্তি পাই বা কোন রকমের স্ট্রেস থাকলে সেটি কমে । এই প্রক্রিয়াটি শুধু আমার জন্য না সবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। আপনি চাইলে যাচাই করে দেখতে পারেন।

তাহলে কিভাবে সঠিক ও নির্দিষ্ট ভাবে আপনার সমস্যাগুলো বুঝতে পারবেন?

একটি খাতা ও একটি কলম নিন এবং নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর তাতে লিখুন এরপর এই উত্তর লেখার আগে আপনার কেমন অনুভূতি হয়েছিল এবং লেখার পর আপনার কেমন অনুভূতি হচ্ছে সেটি একটি খাতায় লিখুন পার্থক্যটা আপনার কাছে সহজ হবে।

আপনি চাইলে আপনার ইস্যুটি বাংলা কিংবা ইংরেজিতে লিখতে পারেন। তবে যে ভাষাটি আপনার কাছে সহজবোধগম্য মনে হবে এবং যে ভাষাতে আপনি আপনার মনের অনুভূতি প্রকাশ করতে পারেন সেই ভাষাতেই আপনি লিখবেন।

লেখার ক্ষেত্রে এই ফরমেটে (৬টি প্রশ্নের উত্তর) লিখবেন। আবারো বলি মনে রাখবেন যতটুকু সম্ভব বিস্তারিত বা বড় করে চিন্তা করে লিখবেন। এক থেকে দুই ঘন্টা সময় নিয়ে লিখুন।

আবার এই ফরমেটে লিখলে হয়তো আমি আপনাকে কোন পরামর্শও দিতে পারব।

১. আপনার কি কি সমস্যা রয়েছে তার জন্য আপনি কাউন্সিলিং নিতে চাচ্ছেন?

২. বর্তমানে কি করলে বা কখন সমস্যাটি হয়?

৩. সমস্যাটি কবে থেকে এবং কিভাবে তৈরি হয়েছে বিস্তারিত বর্ণনা করুন।

৪. বর্তমানে কি কি কারণে সমস্যা গুলো চলছে বলে আপনার মনে হয়?

৫. সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আপনি কি কি পদক্ষেপ নিয়ে থাকেন?

৬. সর্বশেষে কাউন্সিলিং সম্পর্কে আপনার ধারণা কি? আপনি সাইকোলজিকাল কাউন্সিলিং থেকে কি আশা করেন?

যতটুকু সম্ভব বিস্তারিত লিখবেন এটি আপনার কেইসটিকে ফর্মুলেশন করতে সাহায্য করবে। ধন্যবাদ

অনুভূতিগুলো সম্পর্কে আপনার বিস্তারিত ধারণা থাকতে হবে অনুভূতিগুলো সম্পর্কে ধারণা না থাকলে গুগলে লিখুন “অনুভূতি চার্ট” এখান থেকে বেছে বেছে আপনার অনুভূতিগুলো লিখে ফেলুন

লিখেছেন রাজু আকন, কাউন্সিলিং সাইকোলজিস্ট

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top